মেয়ে শিশুর সঙ্গে অসভ্যতা, মোরগ গ্রেফতার!

বাড়ির পাশে খেলছিল পাঁচ বছরের মেয়ে শিশুটি। এ সময় তার সঙ্গে অসভ্যতা করে বসে এক মোরগ। এরই জেরে ওই মোরগকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সেই সঙ্গে মুরগীটির মালিককেও সস্ত্রীক আটক করেছে স্থানীয় পুলিশ।

সম্প্রতি ভারতের মধ্যপ্রদেশের শিরপুরী জেলায় এ ঘটনা ঘটে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়, ঋতিকা নামে পাঁচ বছর বয়সী মেয়ে শিশুটি তাদের বাড়ির সামনে খেলছিল। খেলার সময় মোরগটি তাকে আক্রমণ করে। এসময় মোরগটি শিশুটির গালে ঠোকরাতে শুরু করে। ঋতিকা রক্তাক্ত অবস্থায় কান্নাকাটি শুরু করলে তার মা পুনম কুশবাহা এসে তাকে উদ্ধার করেন এবং তাকে নিয়ে থানায় যান। পুনম সেই মোরগ ও তার মালিকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগের ভিত্তিতে মুরগী সমেত তার মালিককে আটক করে পুলিশ। জানা গেছে, পাপ্পুরা নিঃসন্তান। কয়েক বছর আগে মোরগটিকে মাত্র পাঁচ টাকায় কিনেছিলেন তারা। তারপর থেকে মুরগীটিকে সন্তান স্নেহেই লালন করছিলো ওই পরিবার। তবে, পুনম জানান, তার প্রতিবেশী পাপ্পু ও তার স্ত্রীর পোষা এই মোরগের আচার-আচরণ মোটেই সুবিধার নয়। মোরগটি বেশ কিছুদিন ধরেই তার শিশুকন্যা ঋতিকাকে জ্বলাতন করেছে। তার জ্বালায় ঋতিকা বাড়ির বাইরে বেরতে পর্যন্ত ভয় পায়।

এ নিয়ে তিনি বার বার পাপ্পুদের নালিশ জানালেও কোনো ফল হয়নি। আদরের মোরগ সম্পর্কে কোনো অভিযোগ পাপ্পু ও তার স্ত্রী কানে তুলতেই রাজি নন। পুনমের মতে, গত পাঁচ মাসে চার বার মোরগটি তার মেয়েকে আক্রমণ করেছে। শেষে অবশ্য পুনম ও পাপ্পুর পরিবার নিজেদের মধ্যেই আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি মিটিয়ে নেন। পুলিশ বিষয়টি নিয়ে আর এগোয়নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Student BD © 2017